• কবিতা সুর্মা


    কবি কবিতা আর কবিতার কাজল-লতা জুড়ে যে আলো-অন্ধকার তার নিজস্ব পুনর্লিখন।


    সম্পাদনায় - উমাপদ কর
  • ভাবনালেখা লেখাভাবনা


    কবিতা নিয়ে গদ্য। কবিতা এবং গদ্যের ভেদরেখাকে প্রশ্ন করতেই এই বিভাগটির অবতারণা। পাঠক এবং কবির ভেদরেখাকেও।


    সম্পাদনায় - অনিমিখ পাত্র
  • সাক্ষাৎকার


    এই বিভাগে পাবেন এক বা একাধিক কবির সাক্ষাৎকার। নিয়েছেন আরেক কবি, বা কবিতার মগ্ন পাঠক। বাঁধাগতের বাইরে কিছু কথাবার্তা, যা চিন্তাভাবনার দিগন্তকে ফুটো করে দিতে চায়।


    সম্পাদনায়ঃ মৃগাঙ্কশেখর গঙ্গোপাধ্যায়
  • গল্পনা


    গল্প নয়। গল্পের সংজ্ঞাকে প্রশ্ন করতে চায় এই বিভাগ। প্রতিটি সংখ্যায় আপনারা পাবেন এমন এক পাঠবস্তু, যা প্রচলিতকে থামিয়ে দেয়, এবং নতুনের পথ দেখিয়ে দেয়।


    সম্পাদনায়ঃ অর্ক চট্টোপাধ্যায়
  • হারানো কবিতাগুলো - রমিতের জানালায়


    আমাদের পাঠকরা এই বিভাগটির প্রতি কৃতজ্ঞতা স্বীকার করেছেন বারবার। এক নিবিষ্ট খনকের মতো রমিত দে, বাংলা কবিতার বিস্মৃত ও অবহেলিত মণিমুক্তোগুলো ধারাবাহিকভাবে তুলে আনছেন, ও আমাদের গর্বিত করছেন।


    সম্পাদনায় - রমিত দে
  • কবিতা ভাষান


    ভাষা। সে কি কবিতার অন্তরায়, নাকি সহায়? ভাষান্তর। সে কি হয় কবিতার? কবিতা কি ভেসে যায় এক ভাষা থেকে আরেকে? জানতে হলে এই বিভাগটিতে আসতেই হবে আপনাকে।


    সম্পাদনায় - শৌভিক দে সরকার
  • অন্য ভাষার কবিতা


    আমরা বিশ্বাস করি, একটি ভাষার কবিতা সমৃদ্ধ হয় আরেক ভাষার কবিতায়। আমরা বিশ্বাস করি সৎ ও পরিশ্রমী অনুবাদ পারে আমাদের হীনমন্যতা কাটিয়ে আন্তর্জাতিক পরিসরটি সম্পর্কে সজাগ করে দিতে।


    সম্পাদনায় - অর্জুন বন্দ্যোপাধ্যায়
  • এ মাসের কবি


    মাসের ব্যাপারটা অজুহাত মাত্র। তারিখ কোনো বিষয়ই নয় এই বিভাগে। আসলে আমরা আমাদের শ্রদ্ধা ও ভালবাসার কবিকে নিজেদের মনোভাব জানাতে চাই। একটা সংখ্যায় আমরা একজনকে একটু সিংহাসনে বসাতে চাই। আশা করি, কেউ কিছু মনে করবেন না।


    সম্পাদনায় - নীলাব্জ চক্রবর্তী
  • পাঠম্যানিয়ার পেরিস্কোপ


    সমালোচনা সাহিত্য এখন স্তুতি আর নিন্দার আখড়ায় পর্যবসিত। গোষ্ঠীবদ্ধতার চরমতম রূপ সেখানে চোখে পড়ে। গ্রন্থসমালোচনার এই বিভাগটিতে আমরা একটু সততার আশ্বাস পেতে চাই, পেতে চাই খোলা হাওয়ার আমেজ।


    সম্পাদনায় - সব্যসাচী হাজরা
  • দৃশ্যত


    ছবি আর কবিতার ভেদ কি মুছে ফেলতে চান, পাঠক? কিন্তু কেন? ওরা তো আলাদা হয়েই বেশ আছে। কবি কিছু নিচ্ছেন ক্যানভাস থেকে, শিল্পী কিছু নিচ্ছেন অক্ষরমালা থেকে। চক্ষুকর্ণের এই বিনিময়, আহা, শাশ্বত হোক।


    সম্পাদনায় - অমিত বিশ্বাস

নিত্য মালাকার




নিত্য মালাকার এর কবিতা


অবিশ্বাস, সন্দেহহেতু

অন্যকে সন্দেহ করবার আগে নিজেকে সন্দেহ করো

একথা কেউতো বলেছিলেন বটে কিন্তু,আমি চুল ছিঁড়ে
ভুরুসন্ধি ঘেঁটেও তাকে ঠিক মনে করতে পারছি না আদৌ

এতটাই দুঃস্থ পর্যুদস্ত আমি, -  আমার আরোগ্য প্রয়োজন
আমার মনোনিবেশ প্রয়োজন       হোমানলে আত্মনিবেশ
                                                           প্রয়োজন

এইসব তিরস্কার পরামর্শ শুনে আমি অভিভূজ কোণটির
                                আশ্রয়ে নিজেকে বাঁচাই বটে
কিন্তু  অবিশ্বাসবশত তোমাকে গোপনে

অনুসরণ ইচ্ছা আমার কিছুতেই যায় না


সক্রেটিসঃ হেমলক পানের পর

নটে পালং লাল শাক বা শিশু সর্ষে মুলো
এবং গেরস্থের রেস্ত-উপযোগী বাজার ও রাস্তার
হিরু বীরু বেলা কমলাবালা লক্ষ্মী যমুনাবালা
                      অন্নদা মাসিপিসিদের গ্রামের
সোহাগ স্নিগ্ধ হেমন্তের উত্তর শারদীয়া বার্তা
                      সব পেয়েছি বাজারের দেশে-

দেখে স্তম্ভিত নাকি বোবা কালা হয়ে
অবিমৃশ্যকারী,কূপমন্ডুক এবং শিশ্রোদয় প্রিয়-
         সহসা বিবেকজাত টার্মগুলির ঐ মোহঘোর

খুঁজি ও থলেয় ভরি সকল অজর্জিতের সুখমায়া

ঘরে এসে দেখি-হাসছেন যিনি তিনি স্বয়ং
আর কেউ নন আমারই প্রফুল্লনন্দিনী  জ্যানথিপি



শিরোনামহীন

নীরবতার কাছে ইদানীং নিচুমখ হয়ে বসে আছি
এখানে আমরা দুজন ছাড়া মনুষ্যসমাকুলতার
                                            কিছু নেই

আমাদের সময় অখন্ড তবু তারপরও
                            তাকে এক ভেঙে দুই করি

আমরা পরস্পর মৃত ও জীবিত হই
                                আঁধারের পরিসর খুঁজি
আলাপ বিস্তার করি, উড়ি, গাই

                 ডানায় আগুন লাগে, হাসি হো-হো
My Blogger Tricks

1 টি মন্তব্য:

  1. অবিশ্বাস এবং শিরোনামহীন দারুন লেগেছে

    উত্তরমুছুন